rexfeatures_5494849agযখন কারো ঘুম আসেনা, ঘুমানোর কিছুক্ষণ পরেই ঘুম ভেঙ্গে যায় এবং পরিপূর্ণ ঘুম হয়না বলে সতেজতা অনুভব করেনা তখন তার এই সমস্যাকে ইনসমনিয়া বা অনিদ্রা বলে। ইনসমনিয়ায় আক্রান্ত মানুষদের মনোযোগের সমস্যা হয়, স্মৃতি ও উৎপাদনশীলতায় বাঁধা আসতে  দেখা যায়। দীর্ঘমেয়াদী অনিদ্রার ফলে ডিপ্রেশন, অ্যাংজাইটি, ওজন বৃদ্ধি, উচ্চ রক্তচাপ, টাইপ ২ ডায়াবেটিস, স্ট্রোক এবং কার্ডিওভাস্কুলার ডিজিজ হওয়ার ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়।

প্রায় প্রতিটি মানুষই স্ট্রেসের কারণে কখনো কখনো অনিদ্রার সমস্যায় ভুগে থাকে। স্ট্রেস কমে গেলেই তাদের ঘুমের ধরণ আবার স্বাভাবিক হয়ে যায়। কিন্তু দীর্ঘস্থায়ী অনিদ্রায় যারা ভোগেন তাদের এর থেকে বের হয়ে আসতে অনেক যুদ্ধ করতে হয়। ইনসমনিয়া থেকে মুক্ত হওয়ার সহজ কিছু উপায়ের বিষয়েই জানবো আজ।

১। প্রতিদিন একই সময়ে ঘুমাতে যান

ঘুম একটি প্রাকৃতিক সাইকোলজিক্যাল প্রসেস। প্রতিদিন একই সময়ে ঘুমাতে যাওয়া এবং উঠার ফ���ে আপনার শরীর সেভাবেই অভ্যস্ত হয়ে যায়। তাই রাতের সে সময়ে শরীর বুঝতে পারে যে, এখন ঘুমানোর সময়।

২। মনোযোগী হোন

আপনার ঘুম আসেনা এবং ঘুম না আসার ফলে কী কী সমস্যা হতে পারে এই দুশ্চিন্তা নিয়ে ঘুমাতে গেলে আপনার উত্তেজনার মাত্রাই শুধু বৃদ্ধি পাবে। তাই এ ধরণের দুশ্চিন্তা বাদ দিয়ে রিলেক্স থাকার চেষ্টা করুন এবং বর্তমান সময়ের দিকে মনোযোগ দিন।

৩। আপনার আবেগ ও চিন্তাকে স্বাগত জানান

ভীতিকর চিন্তা ভাবনা এবং শক্তিশালী আবেগ যেমন- উদ্বিগ্নতা রাতের ঘুম নষ্ট করে দিতে পারে। তাই এদের সাথে আপনার সম্পর্কটাকে পরিবর্তন করে নিতে হবে। অর্থাৎ এধরণের আবেগকে চিনতে চেষ্টা করুন এবং এদের স্বাগত জানান তাহলেই আপনার উত্তেজনা কমবে এবং আপনার ঘুমের জন্য খুব বেশি সংগ্রাম করতে হবেনা।

৪। রাতের খাবার তাড়াতাড়ি খান

ঘুমের অল্প কিছুক্ষণ আগে যদি উচ্চ ক্যালোরির ভারী খাবার খান তাহলে ঘুমের ব্যঘাত সৃষ্টি হতে পারে। তাই ঘুমানোর অন্তত ২-৩ ঘন্টা আগে খাওয়া সেরে নিন। ঘুমানোর আগে ক্ষুধা লাগলে পানি পান করুন।

৫। প্রতিদিন ব্যায়াম করুন

নিয়মিত ব্যায়ামের ফলে ভালো ঘুম হয়। প্রতিদিন ১০,০০০ কদম হাঁটলে ঘুমের মানের পরিবর্তন বুঝতে পারবেন। যোগব্যায়াম করতে পারেন। যোগব্যায়াম করলে শরীর ও মন শিথিল হয় বলে ঘুম আসার জন্য উপকারী যোগব্যায়াম।

৬। ক্যাফেইন গ্রহণ কমান

চা, কফি, এনার্জি ড্রিংকের মত ক্যাফেইন জাতীয় পানীয় পান করা কমিয়ে দিন বিশেষ করে সন্ধ্যায়। ক্যাফেইন ঘুমের প্রক্রিয়াতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে এবং গভীর ঘুম হতে দেয়না। হারবাল টি বা দুধ পান করতে পারেন।

SOURCEPriyo.com
SHARE

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY